Thikana News
০৫ মার্চ ২০২৪
  1. ই-পেপার
  2. চলতি সংখ্যা
  3. বিশেষ সংখ্যা
  4. প্রধান সংবাদ
  5. আমেরিকার অন্দরে
  6. বিশ্বচরাচর
আমেরিকা মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪

ব্রুকলিনে মানি এক্সচেঞ্জ ও ফোনের দোকানে ডাকাতি

ব্রুকলিনে মানি এক্সচেঞ্জ ও ফোনের দোকানে ডাকাতি
নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে একটি মানি এক্সচেঞ্জ ও মোবাইল ফোনের দোকানে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। দুজন অস্ত্রধারী দোকানে প্রবেশ করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে নগদ অর্থ, মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র নিয়ে যায়। ডাকাতি ঠেকাতে দোকানের স্টাফরা চেষ্টা করলেও শেষ রক্ষা হয়নি। ২ ফেব্রুয়ারি রাতে এ ঘটনা ঘটে ব্রুকলিনের ইউক্লিড সাবওয়ের নিকটবর্তী পাইন স্ট্রিটের স্কাই ওয়্যারলেস বিডিতে। এ ঘটনার আগেও ওই এলাকার বিভিন্ন স্ট্রিটে একাধিক ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ঘটনা ঘটার পরপরই ব্যবসায়ীরা পুলিশে রিপোর্ট করছেন। পুলিশও সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে আসছে। কিন্তু ততক্ষণে অপরাধীরা ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যাচ্ছে। এতে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
ডাকাতি হওয়া মানি এক্সচেঞ্জ কোম্পানির দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই ব্রুকলিনের ইস্ট নিউইয়র্ক ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করে আসছেন। দীর্ঘদিন ব্যবসা করলেও এখন সেখানের পরিস্থিতি আগের তুলনায় অনেক বদলে গেছে। কারণ সেখানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে হামলা, চুরি, অস্ত্রের মুখে ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। ফলে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। আবার ক্রেতারাও ভয় পাচ্ছেন। তিনি বলেন, চলমান পরিস্থিতির দ্রুত নিরসন দরকার।
ওই ব্যবসায়ী বলেন, আগে আমরা ওই মানি এক্সচেঞ্জের এজেন্টের কাছ থেকে সারা সপ্তাহের অর্থ সপ্তাহে তিন দিন আনতাম। দোকানেই অর্থ রাখতাম। কিন্তু এখন আর এটি করা যাবে না। আমরা চিন্তা করছি ও সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এখন দোকানে আর অর্থ রাখা যাবে না। আরও সিদ্ধান্ত নিয়েছি, ভেতর থেকে দরজা বন্ধ রাখা হবে। কাস্টমার দেখে দরজা খোলা হবে, যাতে করে যখন তখন যে কেউ সেখানে প্রবেশ করতে না পারে। দরজা বন্ধ রাখা এবং সেটি খোলা বারবার ঝামেলার হলেও কিছু করার নেই। নিরুপায় হয়েই আমাদের এটি করতে হবে দোকানের ও ক্রেতাদের স্বার্থে। যদিও এটি স্থায়ী সমাধান নয়, তবু পরিস্থিতির কারণেই এটি করতে হবে।
তিনি বলেন, আমাদের এজেন্টের ওখানে ২ ফেব্রুয়ারি রাতে দুজন অস্ত্রধারী মুখে মাস্ক পরে দোকানে আসে। এ সময় তাদের কাছে অস্ত্র ছিল। তারা অস্ত্র দিয়ে এজেন্টকে ভয় দেখায়। দোকানে দুজন স্টাফ ছিল। এক অস্ত্রধারী একজন স্টাফকে দরজার কাছে অস্ত্র তাক করে বসিয়ে রাখে। আরেকজন ক্যাশ কাউন্টারের ওপর দিয়ে ভেতরে প্রবেশ করে ক্যাশ থেকে অর্থ নিয়ে যায়। এ সময়ে আরেকজন স্টাফ ক্যাশ কাউন্টারের কাছে নিচে বসে পড়েন। ডাকাতরা দোকানে আসে সাধারণ কাস্টমারদের মতোই। সেখানে তারা এসে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকে। এরপর তারা ডাকাতি করে নির্বিঘ্নে বেরিয়ে যায়। তিনি বলেন, ওটি আমাদের মানি এক্সচেঞ্জের এজেন্ট ছাড়াও মোবাইল ফোনের দোকান। দোকানের ড্রয়ার থেকে নগদ অর্থ নিয়ে গেছে, পাশাপাশি বেশ কয়েকটি মোবাইল ফোনের সেটও নিয়ে গেছে। তিনি বলেন, যারা ডাকাতি করতে আসে, তারা অল্প বয়সী ছেলে। তবে কোন দেশের, তা চিহ্নিত করতে পারিনি।
তিনি জানান, সাম্প্রতিক সময়ে ব্রুকলিনের পাইন স্ট্রিটে এফএম ওয়্যারলেস, পিটকিন অ্যাভিনিউতে রেডস্টোন ফার্মেসি, কনডিড বুলেভার্ডে সাবওয়ে স্যান্ডউইচ, পিটকিন অ্যাভিনিউতে এশিয়ান গ্রোসারি, লিবার্টি অ্যাভিনিউতে লিবার্টি সুপার মার্কেট, কনডিড বুলেভার্ডে বিপি গ্যাস স্টেশনে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে বলে জানতে পেরেছি।
সূত্র জানায়, ভুক্তভোগীরা বিষয়গুলো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবহিত করছেন। তারা ঘটনাস্থলে এলেও কোনো কাজ হচ্ছে না। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের ঘটনা আর না ঘটে, সে জন্য ব্যবসায়ীরা সিটি মেয়র, সিটি কাউন্সিলর, এলাকার জনপ্রতিনিধিসহ পুলিশ প্রশাসনের কাছে ওই এলাকায় অতিরিক্ত নিরাপত্তা জোরদার করার অনুরোধ জানান।

কমেন্ট বক্স