Thikana News
০৪ মার্চ ২০২৪
  1. ই-পেপার
  2. চলতি সংখ্যা
  3. বিশেষ সংখ্যা
  4. প্রধান সংবাদ
  5. আমেরিকার অন্দরে
  6. বিশ্বচরাচর
আমেরিকা সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪

ছেলেকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য ভারতে গেলেন পরীমনি

ছেলেকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য ভারতে গেলেন পরীমনি
গেল সপ্তাহে নানাবাড়ি বরিশাল থেকে ফেরার পথে রাস্তায় দোকানের ফল খেয়ে সন্তান ও বাসার কয়েকজন অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে ফেইসবুকে জানিয়েছিলেন পরীমনি। 
রাস্তার ফল খেয়ে অসুস্থ হওয়ার পর এখনো সেরে উঠেননি নায়িকা পরীমনির ছেলে পদ্ম। নিজেও শারীরিকভাবে সুস্থ নন। এবার ছেলেকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য ভারতে গেলেন তিনি। 
ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে টানা সাত দিন থাকার পর কলকাতা গিয়েছেন পরী। নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী বুধবার সন্ধ্যায় ফেইসবুক পোস্টে এ তথ্য জানিয়েছেন।

গেল সপ্তাহে নানাবাড়ি বরিশাল থেকে ফেরার পথে রাস্তায় দোকানের ফল খেয়ে সন্তান ও বাসার কয়েকজন অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে ফেইসবুকে জানিয়েছিলেন পরীমনি।
গত ১১ জানুয়ারি থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন এ নায়িকা।
সবাইকে সতর্ক করে ১৪ জানুয়ারি পরীমনি ফেইসবুকে লিখেছিলেন, “শীতকালে সবাই খাবার দাবার বুঝে খাবেন। বিশেষ করে বাইরের খাবার। এত ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস শীতের সময় এসব থেকে সেইফ থাকা মুশকিল।
“বরিশাল থেকে ফেরার পথে একটা ফলের দোকান থেকে কিছু ফল কিনেছিলাম। বাসায় ফল খাওয়ার আগে রেগুলার যেভাবে ক্লিন করা হয় সেভাবে না করেই শুধু মিনারেল ওয়াটার দিয়ে ধুয়ে খেয়েছিলাম। বাবু খুবই অল্প পরিমান মানে দুই একটা বাইট নিয়েছিলো। ব্যাস! বাচ্চা, আমি, আমার গাড়ি চালকসহ আমার বাসার মোট পাঁচ জন ফুড পয়জনিং নিয়ে ১১ জানুয়ারি রাত থেকে হসপিটালে। ”

অন্য সবাই সুস্থ হলেও ছেলে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেনি বলেও জানিয়েছিলেন নায়িকা।

পরীমনি ও তার ছেলেকে বিমান বন্দরে বিদায় জানিয়ে এসে বুধবার সন্ধ্যায় নির্মাতা চয়নিকা ফেসবুকে লিখেন, “এভারকেয়ার হাসপাতালে টানা ৭ দিন থাকার পর, ছেলের চিকিৎসার জন্যে সরাসরি কলকাতার পথে পরীমনি।

“পদ্ম খুব খুব অসুস্থ। তার দুইটা ভাইরাস ধরা পড়েছে। পরীও পুরোপুরি সুস্থ না। কিন্ত কিছুই করার নেই। আপনারা সবাই পদ্মর জন্যে পরীর জন্যে দোয়া প্রার্থনা করবেন। যেন আমাদের আদরের বাচ্চাটা সুস্থ হয়ে ফিরে আসে। পদ্ম খুব কষ্ট পাচ্ছিল। ”

পরীমনির বিভিন্ন পারিবারিক ঘটনায়ও পাশে থাকতে দেখা যায় নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরীকে।

ভারতীয় ভিসা না থাকায় চয়নিকা এবার সঙ্গে যেতে পারেননি বলে জানান।

পরীমনিকে লড়াকু উল্লেখ করে চয়নিকা লেখেন, “পরী, আমি জানি তুমি ফাইটার। তুমি অনেক বুদ্ধিমতি, তুমি অনেক ধৈর্যশীলা মানুষ। তুমি একাই সব পারবে। আমি শিওর। তুমি জয়ী হয়েই আসবে। তোমার ছেলে বড় হয়ে তোমার এই জীবনের গল্প মনে রাখবে আর প্রাউড ফিল করবে। মা এত্ত ভালোবাসা আর আশির্বাদ তোমার আর পদ্মের জন্যে। সাবধানে থেকো।

তোমার শুভাকাঙ্ক্ষীরা তোমার সাথে সবসময় আছে, থাকবে। ”

ঠিকানা/এসআর

কমেন্ট বক্স