Thikana News
১৪ জুলাই ২০২৪
  1. ই-পেপার
  2. চলতি সংখ্যা
  3. বিশেষ সংখ্যা
  4. প্রধান সংবাদ
  5. আমেরিকার অন্দরে
  6. বিশ্বচরাচর
আমেরিকা রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

ভারত-রাশিয়ার বন্ধুত্ব নিয়ে ‘উদ্বিগ্ন’যুক্তরাষ্ট্র

ভারত-রাশিয়ার বন্ধুত্ব নিয়ে ‘উদ্বিগ্ন’যুক্তরাষ্ট্র
দুদিনের সফরে রাশিয়ায় গেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদি সে-দেশে পৌঁছনোর আগেই সফর নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছিল ক্রেমলিন। পশ্চিমি দেশগুলোকে খোঁচা দিয়ে রাশিয়া বলেছিল, মোদি-পুতিনের এই সাক্ষাৎ নিয়ে তারা ঈর্ষান্বিত। ২০২২ সালে রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা চালানোর পর এটিই মোদির প্রথম মস্কো-সফর। আর সেই সফরে গিয়েই রাশিয়ার মাটিতে তার দেশের মানুষের বঞ্চনার কথা তুলে ধরলেন তিনি। দুদিনের এই সফরের প্রথম দিন, সোমবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে নৈশভোজে অংশ নিয়েছেন মোদি। মঙ্গলবার দুই নেতা রুশ প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ে বৈঠক করবেন। নয়াদিল্লির কাছে এই সফরের যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। পুতিনকে ইতিমধ্যেই তিনি জানিয়েছেন, কীভাবে ভারতীয়দের প্রতারণা করে রাশিয়ার সেনাবাহিনীতে যোগ দেয়ানো হয়েছে! মোদির কাছ থেকে বিষয়টি শুনে এই ঘটনায় যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের পাশে থাকার আশ্বাসও দিয়েছেন পুতিন। রুশ প্রেসিডেন্ট মোদির প্রশংসায় উচ্ছ্বসিত।

সাক্ষাতের শুরুতেই পুতিন মোদিকে তৃতীয়বার ক্ষমতায় ফেরার জন্য শুভেচ্ছা জানান। বলেন, তার এই জয় এমনি-এমনি নয়। দীর্ঘদিনের কঠোর পরিশ্রমের ফল এই জয়। তিনি আরও বলেন, ভারতের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি নিয়ে মোদির স্বতন্ত্র চিন্তাভাবনা আছে। দেশের মানুষের স্বার্থে তিনি কঠিন সিদ্ধান্ত থেকে পিছিয়ে আসেন না। মোদিও বলেন, ভারতের মানুষের কাছে তিনি কৃতজ্ঞ, তাদের সেবা করার আরেকবার সুযোগ করে দেয়ার জন্য। শুধু তাই নয় পুতিন মোদিকে কিছুটা সময় প্রেসিডেন্টের বাসভবন ঘুরিয়ে দেখান ইলেকট্রিক কারে বসিয়ে। তখন তার হাতে ছিল স্টিয়ারিং। আর পাশে ছিলেন মোদি। তারা বেশ কিছুটা সময় কথাবার্তা বলেন। এদিকে রাশিয়ায় মোদি-পুতিন ‘সখ্যতা দেখে উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়ায় মোদি পা রাখার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মার্কিন বিদেশদপ্তরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার। তিনি বলেন, ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কূটনৈতিক ক্ষেত্রে সহযোগী। দুই দেশের মধ্যে আলোচনার সম্পর্ক রয়েছে। রাশিয়ার সঙ্গে নয়াদিল্লির সম্পর্ক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র উদ্বিগ্ন। একইসঙ্গে মিলার মনে করিয়ে দেন, “ভারতের কাছে আমাদের অনুরোধ, তারা যেন রাশিয়াকে স্পষ্ট করে বলে দেয় যে ইউক্রেন যুদ্ধের সমাধান জাতিসংঘের সনদ মেনে হওয়া উচিত যাতে ইউক্রেনের অখণ্ডতা বজায় থাকে। রাশিয়ার সঙ্গে যেসমস্ত দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে, প্রত্যেকের কাছেই আমরা একই অনুরোধ করি।” সূত্র: হিন্দুস্থান টাইমস

ঠিকানা/এসআর

কমেন্ট বক্স