Thikana News
১৪ জুলাই ২০২৪
  1. ই-পেপার
  2. চলতি সংখ্যা
  3. বিশেষ সংখ্যা
  4. প্রধান সংবাদ
  5. আমেরিকার অন্দরে
  6. বিশ্বচরাচর
আমেরিকা রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪
ভিডিও ফাঁস

বাইডেন-হ্যারিসকে নিয়ে ট্রাম্পের ‘আপত্তিকর’ মন্তব্য

বাইডেন-হ্যারিসকে নিয়ে ট্রাম্পের ‘আপত্তিকর’ মন্তব্য ছবি সংগৃহীত
গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেনশিয়াল বিতর্কে জো বাইডেনের বিপরীতে তুখোড় বক্তব্য দিয়েছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর সে নিয়েই গলফ খেলার মাঠে কথা বলছিলেন ট্রাম্প। তবে তিনি এ সময় বাইডেন ও কমলা হ্যারিসকে নিয়ে বেশ কিছু ‘আপত্তিকর’ মন্তব্য করেছেন। সেই ঘটনার ভিডিও ফাঁস হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম টেলিগ্রাফ এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

ওই ভিডিওতে দেখা যায়, একটি গলফ কোর্টে চালকের আসনে বসে আছেন ৭৮ বছর বয়সী সাবেক এই মার্কিন প্রেসিডেন্ট। হাতে এক কাঁড়ি ডলার। পাশে বসা ছেলে ব্যারন ট্রাম্প। দেখেই বোঝা যায়, বেশ ফুরফুরে মেজাজে রয়েছেন তিনি।

এ সময় পাশে থাকা লোকজনের উদ্দেশে ট্রাম্পকে বলতে শোনা যায়, ‘সে রাতে (বাইডেনের সঙ্গে) বিতর্কে আমি কেমন করেছি?’ এর পরই নির্বাচন থেকে বাইডেনের সরে দাঁড়ানোর কথা শোনান। বিতর্কের পর বাইডেন ভেঙে পড়েছেন উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, ‘তিনি (নির্বাচন থেকে) সরে দাঁড়াবেন। আমি তাকে (ভোটের মাঠ) থেকে ছিটকে দিয়েছি।’

ট্রাম্প বলেন, ‘আমি পুরোনো ভাঙা কাপ-পিরিচের মতো বাইডেনকে লাথি মেরেছি, সে খুবই জঘন্য লোক। সে (বাইডেন) প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছেড়ে দিচ্ছে...আমি তাকে (ভোটের মাঠ) সরিয়ে দিয়েছি।’

বাইডেনকে নিয়ে মন্তব্যের পর ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের প্রসঙ্গ টানেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘(বাইডেন সরে যাওয়ার) অর্থ নির্বাচনে কমলা আসবেন। প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে তিনি তুলনামূলক ভালো বলে আমার মনে হয়।’ পরক্ষণেই আবার কমলাকে গালি দিয়ে বলতে শুরু করেন, ‘শি ইজ ফাকিং ব্যাড। শি ইজ উইক।’

ভিডিওতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংকে সামলাতে বাইডেনের সক্ষমতা নিয়েও তুচ্ছতাচ্ছিল্য করেছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘ভাবতে পারেন, এই লোকটা (বাইডেন) পুতিনকে সামলাবেন? চীনের প্রেসিডেন্টের কথাও ভাবুন। তিনি (শি জিন পিং) একজন ভয়ংকর মানুষ। তিনি খুবই কঠোর প্রকৃতির।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দৌড় থেকে বাইডেনের সরে যাওয়ার খবরের মধ্যে এই গোপনে রেকর্ড করা ভিডিওটি ফাঁস হলো। ফুটেজে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখ থেকে অশ্লীল বক্তব্য মার্কিন ভোটাররা ভালো চোখে দেখছেন না। ডেমোক্র্যাট শিবির ট্রাম্পকে নিচে নামাতে এবার এই ফুটেজের আশ্রয় নিচ্ছে।

বাইডেন-হ্যারিসের দলের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আমেরিকান জনগণ ডোনাল্ড ট্রাম্পের নীচ ও হীনতা বারবার দেখে আসছে। এই ভিডিও ফুটেজের মাধ্যমে আবারও দেখল। আমেরিকানরা বারবার দেখেছে নারীদের প্রতি বাইডেনের অসম্মান, কালো আমেরিকানদের প্রতি তার ঘৃণা, আমাদের গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক রীতিনীতির প্রতি তার অবজ্ঞা।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আজ ডোনাল্ড ট্রাম্প গলফ খেলার সময় প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ এবং এশিয়ান-আমেরিকান নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হ্যারিসকে ‘বিরক্তিকর’ এবং ‘ফাকিং ব্যাড’ বলে আখ্যা দিয়েছেন।

ট্রাম্প সম্প্রতি প্রচারাভিযানে ক্র্যাপ, অ্যাস এবং হেল-এর মতো শব্দ ব্যবহার করেছেন। কৌশলবিদরা বলেছেন, মৌসুমি ভোটারদের টানতেই ট্রাম্প এসব শব্দ ব্যবহার করছেন।

এর আগে ২০১৬ সালে ফাঁস হওয়া আরেক ভিডিওতে ট্রাম্প নারীদের যৌনাঙ্গে খামচি দিতে চেয়েছিলেন।

এদিকে বাইডেন-হ্যারিস প্রচার দলের মুখপাত্র সারাফিনা চিটিকা সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রাম্পের খারাপ দিকগুলোর ২১টি কারণ তালিকাভুক্ত করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে নারীদের অধিকার কেড়ে নেওয়া, নারীদের লাঞ্ছিত করা, দেউলিয়াত্ব এবং অপরাধমূলক অভিযোগ, ট্যাক্স ফাঁকি, মানুষকে ব্লিচ ইনজেকশন করতে বলা এবং অনবরত মিথ্যা বলা।

ঠিকানা/এনআই

কমেন্ট বক্স